শিরোনাম

স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া, ছেলেধরা বলে চিৎকার করে পিটুনি খেলেন দুজনই

নিজস্ব প্রতিনিধি   |  ১২:০৮, জুলাই ২৩, ২০১৯

স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গেই রিকশায় যাচ্ছিলেন। সাথে ছিলেন স্বামীর এক বন্ধুও। তিনজনকে নিয়ে যখন রিকশাটি চলছিল তখন স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে লাগে ঝগড়া। এক পর্যায়ে তা তুমুল আকার ধারণ করে।

এক পর্যায়ে স্ত্রী অভিযোগ করেন, তিনি শুনেছেন তার স্বামী আরেক বিয়ে করেছেন। কিন্তু স্বামী কোনোভাবেই স্বীকার করছিলেন না বিষয়টি। এ নিয়েই বাদে বিপত্তি।

স্ত্রী রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে লাফ দিয়ে রিকশা থেকে নেমে ছেলেধরা ছেলেধরা বলে চিৎকার করে উঠেন। স্বামীও কম যান না। তিনিও স্ত্রীর দিকে ইশারা করে ছেলেধরা বলে চিৎকার করেন। তা শুনে দৌড়ে আসে আশপাশের মানুষ। আচ্ছামতো দুজনকেই দেয় পিটুনি।

শেষ পর্যন্ত উপস্থিত জনতার গণধোলাইয়ে স্বামী পালিয়ে যায়। আর স্ত্রীকে উদ্ধার করে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে গাজীপুরের শ্রীপুরে নয়নপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শ্রীপুর থানা পুলিশ জানান, স্থানীয় বেড়াইদেরচালা গ্ৰামের মুক্তিযোদ্ধা এবিএম তাজউদ্দিনের মেয়ে তানিয়া। তানিয়ার স্বামীর সাথে কথা কাটাকাটির এক সময় এলাকার স্থানীয়রা এসে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে দু‘জনকে পিটিয়ে আহত করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তানিয়া উদ্ধার করে।

শ্রীপুর থানার এসআই আমিনুল হক জানান, এ ঘটনার সন্দেহে তানিয়াকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

আরআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত