শিরোনাম

ভাতিজার সঙ্গেই সংসার করবেন চাচি!

জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, আশুলিয়া  |  ১৩:০৩, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯

অসম প্রেমিক ভাতিজার হাত ধরে স্বামীর সংসার ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন চাচি। স্বামীর সাধারণ ডাইরির সূত্রধরে স্ত্রীর মুঠোফোন ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে অবস্থান সনাক্ত করে শুক্রবার সন্ধ্যায় আশুলিয়ার টেংগুরী এলাকার জানু বেগমের ভাড়া বাড়ি থেকে এই প্রেমিক যুগলকে আটক করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ। 

আটককৃতরা হলো- জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি থানার উষলা গ্রামের আজিজুল ইসলামের স্ত্রী গৃহবধূ মিতু আক্তার (৩০) ও তার ভাতিজা আহসান হাবীব (২২)।

জানা যায়, চলতি মাসের ১ তারিখ সকালে মিতু আক্তার তার স্বামীর বাড়ি থেকে রাজধানী ঢাকার মিরপুরে আত্মীয়ের বাসায় যাওয়ার কথা বলে এস.আই পরিবহনের একটি বাসে করে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। মিতু আক্তার আত্মীয়র বাসায় না গিয়ে বিকেল পাঁচটার দিকে তাঁর মুঠোফোনটি বন্ধ করে দেয়।

ফোন বন্ধ থাকায় এবং স্ত্রীর সাথে যোগাযোগ করতে না পারায় হতভাগা স্বামী পরের দিন সকালে আশুলিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন। আটক হওয়ার আগপর্যন্ত সে জানতনা তাঁর স্ত্রী তারই আপন ভাতিজার প্রেমে পড়ে আত্মীয় বাড়ি যাওয়ার ওযুহাতে আত্মগোপনে রয়েছে। এতকিছুর পরও স্ত্রীকে বাড়ি ফিরিয়ে নিতেচান স্বামী। তবে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মিতু আক্তার সাব জানিয়ে দিয়েছে, সে ভাতিজার সাথেই সংসার করবে।

এব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক শ্রী রামকৃষ্ণ দাস বলেন, সাধারণ ডায়রি করার পর তার মুঠোফোনের উপর আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে অবস্থান সনাক্তের চেষ্টা চলে। গত দুই দিন ধরে তার ব্যবহৃত মুঠোফোনে অন্য একটি সীম কার্ড ব্যবহার করলে তার অবস্থান সনাক্ত করে তাকে উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারকৃত গৃহবধূর বরাত দিয়ে তিনি আরও জানান, গৃহবধুকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে তার স্বামীর ভাইয়ের ছেলেকে ভালবাসে বলে জানান। এবং তার সাথেই পরবর্তীতে থাকতে চান।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত