শিরোনাম

আমার সংবাদকে হানিফ

স্বাধীনতাবিরোধী চক্র বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল

প্রিন্ট সংস্করণ   |  ১১:৪৪, আগস্ট ১৪, ২০১৯

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, আগস্ট মাস বাঙালি জাতির কলঙ্কের মাস । ৭৫ এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে বাঙালির বীরত্ব গাঁথা ইতিহাসে কালিমা লেপন করা হয়।

জাতির জনককে হত্যা করে আমাদের অকৃতজ্ঞ আর ব্যর্থ জাতিতে পরিণত করে ঘাতকরা। মূলত স্বাধীনতাবিরোধী চক্র পাকিস্তানি এজেন্ট হিসেবে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিলো। যাতে বঙ্গবন্ধুবিহীন বাংলাদেশ হয় পাকিস্তানের একটি অঙ্গরাজ্য।

সম্প্রতি নিজ ব্যবসায়িক কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের এ সিনিয়র নেতার সঙ্গে দৈনিক আমার সংবাদ প্রতিবেদকের আলাপকালে এসব তথ্য উঠে আসে।

আওয়ামী লীগের অন্যতম এ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনে করেন- স্বাধীনতার ৪৮ বছরেও মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনা পুরোপুরি বাস্তবায়ন হয়নি। পাকিস্তানের দোসর স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি এখনো বাংলাদেশের মাটিতে সক্রিয়।

বাংলাদেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বানাতে তারা এখনো অপতৎপরতা চালাচ্ছেন। আগামী প্রজন্মকে এ ব্যাপারে সচেতন এবং স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির আতঙ্ক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

আগস্ট মাস এলেই ভয় আঁকড়ে ধরে এমন অভিমত জানিয়ে মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, এই মাস এলেই স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তিগুলো আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর সক্রিয় হয়ে ওঠে।

এসব অপশক্তিকে প্রতিহত করতে আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এজন্য প্রতিটি মুহূর্ত প্রস্তুত থাকতে হবে। আগস্ট বাংলার মানুষের ব্যথা, বেদনার, ঘৃণার মাস।

আগস্ট মাসের শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে ওই সব অপশক্তিকে প্রতিহত করতে নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকতে হবে। দেশের সাধারণ মানুষকে সচেতন থাকতে হবে।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, সদ্য স্বাধীন দেশকে এগিয়ে নিতে বঙ্গবন্ধু নানামুখী কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলো। কিন্তু স্বাধীনতাবিরোধী একটি চক্র স্বাধীন দেশে পাকিস্তানি এজেন্ট হিসাবে কাজ করতে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিলো। বাংলাদেশকে ঠেলে দিয়ে ছিলো অন্ধকারে।

সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিলো তারা। কিন্তু সেই সব অপশক্তিকে প্রতিহত করে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই অন্ধকার থেকে দেশকে আজ আলোর পথে নিয়ে এসেছেন।

আজ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলায় বাস্তবতায় রূপ নিচ্ছে। এই ধারাবাহিকতা আমাদের সবাইকে ধরে রাখতে হবে, দলমত নির্বিশেষে বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনার পাশে দাঁড়াতে হবে।

হানিফ বলেন, ঘাতক চক্র চেয়েছিল বাংলাদেশকে তালেবান রাষ্ট্র বানাতে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে সব ষড়যন্ত্র ভেদ করে বাংলাদেশ এখন শান্তির জনপদ। উন্নয়নের বাংলাদেশ, ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ। এখানে সব ধর্মের মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে। যার স্বপ্ন বঙ্গবন্ধু দেখেছিলেন।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতাবিরোধী দেশি-বিদেশি শত্রু, মানবতার শত্রু প্রতিক্রিয়াশীল ঘাতকচক্রের হাতে বাঙালি জাতির মুক্তি আন্দোলনের মহানায়ক, স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত