শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

৯ আশ্বিন ১৪২৭

ই-পেপার

নলছিটি (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি

ফেব্রুয়ারি ২২,২০২০, ০৩:৪৭

ফেব্রুয়ারি ২২,২০২০, ০৩:৪৭

ডোবা থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার

ঝালকাঠির নলছিটিতে নিখোঁজের চারদিন পর আসিফ হাওলাদার নামে এক কিশোরের (১৭) ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) নলছিটি শহরের লঞ্চঘাট এলাকার একটি পরিত্যক্ত ডোবা থেকে অর্ধগলিত অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
নিহত আসিফ হাওলাদার নলছিটি শহরের খাসমহল এলাকার ফল বিক্রেতা শাহীন হাওলাদারের ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, নিহত কিশোর আসিফ তার বাবার সাথে ভ্যানগাড়িতে ফল বিক্রির কাজে সহযোগীতা করত। ব্যবসার কাজে সে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। স্বজনরা সম্ভব্য সব জায়গায় খোঁজাখুজির পর তার কোন সন্ধান না পেয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন।

শনিবার দুপুরে লঞ্চঘাট এলাকায় একটি পরিত্যাক্ত ডোবায় স্থানীয়রা তার অর্ধগলিত মৃতদেহ ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

নিহত আসিফের চাচা নাছির হাওলাদার জানান, গত মঙ্গলবার দুপুরে খাসমহল এলাকার ফ্রিজ মেকার সোহেল ও তার কর্মচারি পলাশের সঙ্গে আসিফের ঝগড়া হয়। এসময় তারা আসিফকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

ওইদিন রাত ৮টার দিকে হাইস্কুল সড়কে বাবার ফলের দোকানে যাওয়ার উদ্যেশ্যে বের হয়ে আর বাসায় ফেরেনি। অনেক খোঁজাখোজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। হুমকিদাতা ওই যুবকরাই আসিফকে মেরে ফেলেছে বলে ধারণা করছেন তিনি।

নলছিটি থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাখাওয়াত হোসেন জানান, গত চারদিন নিখোঁজ থাকার পর কিশোর আসিফের মরদেহ একটি ডোবা থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। মরদেহ ফুলে পচন ধরায় শারীরিক নির্যাতনের কোনো চিহ্ন বুঝা যাচ্ছে না। ময়না তদন্তের রিপোর্টে সবকিছু পরিস্কার হবে।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সোহেল ও পলাশ নামে স্থানীয় দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে নিহতের পরিবারে পক্ষ থেকে এখনো কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি বলে ওসি জানান।

আমারসংবাদ/কেএস