শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

১১ আশ্বিন ১৪২৭

ই-পেপার

যশোর প্রতিনিধি

ফেব্রুয়ারি ২২,২০২০, ০৫:৩৫

ফেব্রুয়ারি ২২,২০২০, ০৫:৩৫

ভিসির পদত্যাগের দাবিতে যবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের অনশন

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ভিসি প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেনের পদত্যাগের দাবিতে কাপনের কাপড় পরে শহীদ মিনারে আমরণ অনশনে নেমেছে শিক্ষার্থীরা।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে এই আমরণ অনশন শুরু করে। এর আগে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি শিক্ষার্থীরা অনশনে গেলে তাদের উপর হামলা করা হয়। এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বেশ কিছু আইন কড়াকড়ি করেছে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি অবমাননার মতো ঘটনা ঘটেছে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে। যা অত্যন্ত দুঃখজনক। ইতোমধ্যে উচ্চ আদালতে তা প্রমাণিত হয়েছে। উচ্চ আদালত যাদের রাষ্ট্রদ্রোহী হিসেবে চিহ্নিত করেছেন তাদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় অর্থ ব্যয় করতে পারে না। তাই আমরা রাষ্ট্রদ্রোহীদের পক্ষ নিয়ে এই মামলা পরিচালনার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের টাকা ব্যয় না করতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রীসহ বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করেছি।

এ কারণে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি দুই শিক্ষার্থীকে আজীবনসহ ছয় শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। ১৯ ফেব্রুয়ারি ভিসি পদত্যাগসহ ৯ দফা দাবিতে শিক্ষার্থীরা অনশনে গেলে রাতে তাদের উপর হামলা করা হয়। এদিকে, আজ শনিবার থেকে শিক্ষার্থীরা ফের আমরণ অনশনে নেমেছে।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, এসব শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলা করেছে। ডিসিপ্লিন কমিটির সুপারিশে তাদেরকে বহিস্কার করা হয়েছে।

শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক আদেশে বলা হয়েছে, যবিপ্রবি’র কেন্দ্রীয় শহীদত মিনারে কিছু সংখ্যক শিক্ষার্থী ও বহিরাগতরা ক্লাস-পরীক্ষা চলাকালীন সময় মাইক বাজিয়ে একাডেমিক কার্যক্রমে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ। একই সাথে মাইক সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই সাথে আইডি কার্ড বিহিন বহিরাগতদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস ত্যাগ করার জন্য নিদেশ দেওয়া হয়েছে।

আমারসংবাদ/কেএস