রবিবার ০৫ এপ্রিল ২০২০

২২ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট সংস্করণ

ফেব্রুয়ারি ২৪,২০২০, ১০:১২

ফেব্রুয়ারি ২৪,২০২০, ১০:১২

দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করছে বসুন্ধরা গ্রুপ

দেশের বৃহত্তম শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে দেশ ও মানুষের কল্যাণে। এতে একদিকে দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে যেমন ভূমিকা রাখছে, তেমনি বিপুলসংখ্যক মানুষের কর্মসংস্থানে বড় ভূমিকা পালন করছে।

বসুন্ধরা গ্রুপ যেভাবে কাজ করে যাচ্ছে তাতে মনে হয় তারা আসলে দেশ ও জনগণের সেবাকে পণ হিসেবে গ্রহণ করেছে। দেশ সেরা এই প্রতিষ্ঠানটি ব্যবসার মাধ্যমে শুধু মুনাফা তৈরিতে বিশ্বাস করে না, একই সাথে দেশ ও মানুষের সেবায় নিয়োজিত রয়েছে অবিরাম।

বসুন্ধরা গ্রুপ শুধু অর্থের জন্য নয়, মানুষের ও দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকেই কাজ করে যাচ্ছে। বসুন্ধরা গ্রুপ তাদের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সারা দেশের হাজার হাজার ছেলেমেয়েকে চাকরি দিয়েছে।

এতে বেকার সমস্যা সমাধানে বড় ভূমিকা পালন করছে। উৎপাদন খাত থেকে শুরু করে সেবা খাত এবং খেলাধুলা সব খানেই রয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের পদচারণা। তারা যেখানেই হাত দিয়েছে সেখানেই হয়েছে দেশ সেরা।

বসুন্ধরা গ্রুপ যে সব খাতে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে আবাসন খাত, সিমেন্ট, পেপার, স্টিল, এলপি গ্যাস, সার্ভিস, আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি, শপিংমল, বসুন্ধরা টেকনোলজিস লিমিটেড, বসুন্ধরা আদ দিন হাসপাতাল, বসুন্ধরা চক্ষু হাসপাতাল ও বসুন্ধরা ফুড। বসুন্ধরার যেকোনো পণ্য দেশি-বিদেশি ক্রেতারা দ্বিধাহীনচিত্তে গ্রহণ করছেন।

ইতোমধ্যে দেশের শীর্ষ শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের (বিজি) চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান বলেছেন, চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে স্থাপিত অর্থনৈতিক অঞ্চলে এক কারখানায় তিন লাখ মানুষের কর্মসংস্থান করা হবে। সাম্প্রতিক সময়ে বসুন্ধরা গ্রুপ তাদের বিটুমিন কারখানা চালু করেছে। দেশের চাহিদার ৯০ শতাংশ বিটুমিন আসে বিদেশ থেকে। বসুন্ধরা গ্রুপের কারণে এবার এ আমদানিনির্ভরতা শেষ হতে যাচ্ছে।

পরিশোধিত ক্রুড অয়েলের উপজাত থেকে তৈরি বিটুমিন সড়ক-মহাসড়ক নির্মাণে ব্যবহার করা হয়। বাংলাদেশ পেট্রলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) নিয়ন্ত্রণাধীন ইস্টার্ন রিফাইনারি অভ্যন্তরীণভাবে ৭০ হাজার মেট্রিক টন বিটুমিন উৎপাদন করে।

দেশে বিটুমিনের চাহিদা প্রায় পাঁচ লাখ টন। বাকিটা আসে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ থেকে। কিন্তু বিদেশ থেকে আমদানি করা বিটুমিন ব্যবহার করে নির্মিত সড়ক টেকসই হচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে।

বসুন্ধরা বিটুমিন প্লান্ট এককভাবে বছরে সাড়ে আট লাখ মেট্রিক টন বিটুমিন ও পিচ উৎপাদন করতে পারবে। ফলে সরকারের বিপুল অঙ্কের বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হবে। বসুন্ধরা বিটুমিন প্লান্ট দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানি করবে। আর রপ্তানিতে আসবে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা।

বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপ অন্তত ৩০টি শিল্পকারখানা করেছে। বসুন্ধরা গ্রুপের একটি বৈশিষ্ট্য, বসুন্ধরা গ্রুপ শুধু নিজের জন্য করে না, দেশ ও মানুষের জন্য কাজ করে।

দেশের বিভিন্ন স্থানে আবাসন শিল্পের পথিকৃৎ বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের বেশ কয়েকটি হাউজিং প্রকল্প রয়েছে।

কেরাণীগঞ্জের হাসনাবাদে আট হাজার একর জমিতে বসুন্ধরা রিভারভিউ হাউজিং প্রকল্প ছাড়াও গাজীপুরের মৌচাক ও স্কাউট জাম্বুরির কাছে মৌচাক হাউজিং প্রকল্প, ঢাকা-মাওয়া হাইওয়ের পাশে রিভারভিউ গ্রিন টাউন ও বসুন্ধরা দক্ষিণা প্রকল্প রয়েছে এ গ্রুপের।

আমারসংবাদ/এমএআই