রবিবার ১২ জুলাই ২০২০

২৮ আষাঢ় ১৪২৭

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

জুন ০৪,২০২০, ০২:৪৯

জুন ০৪,২০২০, ০২:৪৯

প্রণোদনা পাননি পোশাক শ্রমিকেরা, হাইকোর্টে রিট

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসে পোশাক শ্রমিকদের বেতনের জন্য সরকার ঘোষিত প্রণোদনা না পেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছেন একটি পোশাক কারখানার মালিক।

রিটের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে আজ। ভার্চুুয়াল কোর্টে এ বিষয়ে শুনানি শেষে নিয়মিত আদালত খুললে এই রিট আবেদন উপস্থাপনের পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আদেশের বিষয়টি জানান সংশ্লিষ্ট আদালতের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাস গুপ্ত।

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের ভার্চুয়াল বেঞ্চে রিটটির শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ব্যারিস্টার একেএম ফখরুল ইসলাম। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাস গুপ্ত।

রিটকারি আইনজীবী ব্যারিস্টার একেএম ফখরুল বলেন, রিটের শুনানির সময় আদালত নিয়মিত খোলার পর রিটটি উপস্থাপন করার জন্য বলেছেন আইনজীবীকে।

আদালত বলেছেন আমরা এখন বাংলাদেশ ব্যাংকের বিষয়ে রুল জারি করছি না, কারণ কিছুদিন পর আদালত যখন আবার নিয়মিত চালু হবে তখন এই রুল নিষ্পত্তি করা সম্ভব নাও হতে পারে। তাই রিটটি নিয়মিত বেঞ্চে (খোলার পর) শুনানির পরামর্শ দেন।

নারায়ণগঞ্জের তারাবো হিমেল সোয়েটার ফ্যাশন প্রা. লিমিটেডের মালিক সাখাওয়াত হোসেনের পক্ষে ১ জুন রিটটি দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার একেএম ফখরুল ইসলাম।

রিটে প্রণোদনা দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। রিটের বিবাদী করা হয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের জেনারেল ম্যানেজার ও ইসলামী ব্যাংকসহ সংশ্লিষ্টদের।

আইনজীবী বলেন, গত ২ এপ্রিল সরকারের জারি করা প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী প্রণোদনা চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক বরাবর আবেদন করেন সাখাওয়াত হোসেন।

আবেদনে উল্লেখ করা হয়, আমার শ্রমিকদের মার্চ, এপ্রিল ও মে মাসের বকেয়া বেতন দেওয়ার জন্য প্রণোদনা প্রয়োজন। আবেদনটিতে গার্মেন্টস মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ'র প্রেসিডেন্ট রুবানা হকের সুপারিশও ছিল, যাতে বলা হয়, সাখাওয়াত হোসেন প্রণোদনা পাওয়ার উপযুক্ত।

কিন্তু তার ব্যাংক হিসাব ইসলামী ব্যাংকে। ইসলামী ব্যাংক প্রণোদনার আওতায় নেই। তাই তিনি প্রণোদনা পাননি। তাই বাংলাদেশ ব্যাংকে বরাবর করা আবেদনের নিষ্পত্তি দাবিতে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন সাখাওয়াত।

২৫ মার্চ জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে রফতানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি জানান, এ তহবিলের অর্থ দ্বারা কেবল শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করা যাবে।

মালিকরা এই টাকা পাবেন দুই শতাংশ হারের সুদে ঋণ হিসাবে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, যে শিল্প তাদের উৎপাদনের ৮০ শতাংশ রপ্তানি করে, তারাই এই প্রণোদনার টাকা পাবে।

আমারসংবাদ/এসআর/এআই