শনিবার ৩০ মে ২০২০

১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

বিনোদন প্রতিবেদক

জানুয়ারি ৩১,২০২০, ০২:২১

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর ‘ইত্যাদি’

দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদি আজ। হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত আঁকা বাঁকা সীমান্ত পরিবেষ্টিত বাংলাদেশের সর্বোত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া। সেখানেই এবার ধারণ করা হয়েছে গণমানুষের প্রিয় অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’। যে পর্বটি একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচার হবে আজ রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর। অনুষ্ঠানটি রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন। এবারের পর্বে উপস্থিত ছিলেন লক্ষাধিক দর্শক। মুক্তিযুদ্ধকালীন দেশের অন্যতম প্রধান মুক্তাঞ্চল তেঁতুলিয়া উপজেলায় তেঁতুলিয়া সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ঐতিহাসিক মাঠে এবারের আয়োজন ধারণ করা হয়। মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধাদের বাছাই, প্রশিক্ষণ, গোলাবারুদ সংরক্ষণ ও বিতরণ করা হয়েছিল এই মাঠ থেকেই। নদী ও ভূমি থেকে পাথর উত্তোলন, সমতল ভূমিতে চা বাগান, মুক্তিযুদ্ধের গৌরবগাঁথা এবং পঞ্চগড়ের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সঙ্গে সাদৃশ্য রেখে নির্মাণ করা আলোকিত মঞ্চের সামনে ধারণ করা হয়েছে এবারের পর্ব। ‘ইত্যাদি’র এবারের পর্বে পঞ্চগড়ের ইতিহাস, ঐতিহ্যর পাশাপাশি রয়েছে পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় এবং মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থানগুলোর উপর তথ্যভিত্তিক প্রতিবেদন। দেশের একমাত্র পাথরের জাদুঘর রকস্ মিউজিয়াম এবং পঞ্চগড়ের সমতলে চা চাষের উপর রয়েছে দুটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন। রয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের নবম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী শিক্ষানুরাগী সুখী আক্তারের জীবন সংগ্রামের উপর একটি হৃদয়স্পর্ষী প্রতিবেদন। বিদেশি প্রতিবেদন পর্বে রয়েছে বার্সেলোনায় পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় স্থান মিউজিয়াম অব ইলুউশন এর উপর একটি সচিত্র প্রতিবেদন। পঞ্চগড় জেলা ও তেঁতুলিয়ার উল্লেখযোগ্য কিছু বিষয় নিয়ে মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানের কথায়, হানিফ সংকেতের সুর ও মেহেদীর সংগীতায়োজনে একটি গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেছেন পঞ্চগড় ও তেঁতুলিয়ার প্রায় দেড় শতাধিক নৃত্যশিল্পী। নাচের গানে কণ্ঠ দিয়েছেন কমল, তানজিনা রুমা, শুক্লা, কৃষ্ণা ও রিয়াদ, নৃত্য পরিচালনা করেছেন গাথী গাঙ্গুলী ও তিলোত্তমা দাস। এ বিষয়ে হানিফ সংকেত বলেন, ‘৩২ বছর ধরে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে প্রচারবিমুখ, জনকল্যাণে নিয়োজিত মানুষকে খুঁজে এনে তুলে ধরা হয় এ অনুষ্ঠানে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার পঞ্চগড় জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্যের পাশাপাশি রয়েছে পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় এবং মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থানগুলোর ওপর তথ্যভিত্তিক প্রতিবেদন। নিয়মিত পর্বসহ এবারও রয়েছে বিভিন্ন সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে বেশ কিছু সরস অথচ তীক্ষ্ণ নাট্যাংশ।’ অনুষ্ঠানটি ধারণ করা হয় ১৭ জানুয়ারি। এ উপলক্ষে তেঁতুলিয়া সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ঐতিহাসিক মাঠে বসানো হয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানটির মঞ্চ। এ উপলক্ষে গোটা পঞ্চগড়বাসীর আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু ছিল ওই স্কুলমাঠ। আমারসংবাদ/এমএআই