সোমবার ০১ জুন ২০২০

১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

বিনোদন প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ১৩,২০২০, ১২:১৬

ফেব্রুয়ারি ১৩,২০২০, ০৬:১৬

স্বপ্নবাজ নির্মাতা শরিফুল ইসলাম শামীম

তরুণ নাট্য নির্মাতা শরিফুল ইসলাম শামীম। শৈশব থেকেই স্বপ্ন বুনেন রঙিন পদার্য় কাজ করবেন। তাই ২০০৩ সালে টোকাই নাট্য দলে যোগদানের পর শুঁকনো ফুল, রঙ্গিন ফুল নামের আবুল হায়াত পরিচালিত ধারাবাহিক নাটকে শিশু শিল্পী হিসেবে অভিনয়ের মাধ্যমে মিডিয়ায় পধচলা শুরু করেন। এরপর থেকে শামীম শিশু শিল্পী হিসেবে বিভিন্ন ধারাবাহিক ও একক নাটক অভিনয় করেন।

এছাড়াও নিয়মিত মঞ্চ নাটকেও অভিনয় করেছিলেন। স্কুলে পড়া অবস্থা জাতীয় শিশু কিশোর সপ্তাহে একক অভিনয়, কবিতা আবৃত্তি, চিত্রাঙ্কন ও গান গেয়েও জাতীয় শিশু কিশোর প্রতিযোগিতায় ২০০৩-২০০৮ সাল পর্যন্ত ১ম স্থান দখল করে পুরষ্কার অর্জন করেছেন। এছাড়া আমরা কুঁড়ি, নতুন কুঁড়ি, বঙ্গবন্ধু একাডেমী, বাংলাদেশ শিশু একাডেমী সহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় থেকে ছোট বেলায় পুরষ্কার অর্জন করেছে।

৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়াকালীন নির্মাণের নেশা তার মাঝে প্রবেশ করে। তখন স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ শুরু করেন। টিউশনের টাকা জমিয়ে, বিভিন্ন কাজ করে পড়াশোনার খরচ চালানোর পাশাপাশি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। সে সময়ের নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র হচ্ছে ক্লাস ফাকি,The Endless sprit, The Who change himself, স্বপ্ন পাখি, আর কত দিন ইত্যাদি। সেই সব স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র দিয়ে বিভিন্ন জায়গা থেকে পুরষ্কার অর্জন করেন। এভাবেই আস্তে আস্তে টিভি নাটক, বিজ্ঞাপন ও প্রামাণ্য চিত্র নির্মাণ কাজ শুরু করেন।
পরিচালক হিসেবে মীনা মিডিয়া এ্যাওয়ার্ড অর্জন করেন ৩ বার। এছাড়া ৯ম আন্তর্জাতিক শিশু চলচ্চিত্র উৎসব, ৩য় তারেক মাসুদ চলচ্চিত্র উৎসব, নর্থ সাউথ চলচ্চিত্র উৎসব, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর ফিল্ম এন্ড মিডিয়া বিভাগ আয়োজিত চলচ্চিত্র উৎসব, স্বদেশী স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, রনেশ গুপ্ত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব বিভিন্ন উৎসব থেকে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র দিয়ে পুস্কার অর্জন করেন শরিফুল ইসলাম শামীম। The Hands Of Rosebud নামক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র দিয়ে একাধিক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব থেকে পুরস্কার অর্জন করেন।

সম্প্রতি কলকাতায় ইন্দো বাংলা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব- ২০২০ শরিফুল ইসলাম শামীম বেস্ট ডিরেক্টর, বেস্ট শর্ট ফিল্ম এ্যাওয়ার্ড বাংলাদেশ হিসেবে পুরষ্কার পেয়েছেন The Water for life ও প্রতিক্রিয়া নামক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র দিয়ে।

বর্তমানে টিভি নাটক, বিজ্ঞাপন ও প্রামাণ্য চিত্র নির্মাণ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন শামীম। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগ থেকে অনার্স ও মাস্টার শেষ করেছেন। এরইমধ্যে বেশ কিছু টিভি নাটক নির্মাণ করে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন।

তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে স্টপ রিংটোন, লাল পায়েল, যে কুঁড়াই কাঁচের গুঁড়ো, তুই কে আমার, ভেল্কি, প্রেমে বয়স মানে না, বডি স্প্রে, ছুটে চলা, কোট টাই পরা রিকশাওয়ালা, ভালোবাসার রং, গল্পটা শুধু তোমার আমার, তোর গল্পে আমি নেই অতৃপ্ত ভালোবাসা, সুফিয়া ইত্যাদি।

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে নির্মাণ করেছেন খন্ড নাটক ভালোবাসার ঘর, মনের আয়না। ১২ ফেব্রুয়ারি চ্যানেল নাইনে প্রচারিত হয় ‘টাপুর টুপু’।

শরিফুল ইসলাম শামীমের স্বপ্ন একিদন চলচ্চিত্র নির্মাণ করবেন। সেই স্বপ্নকে লালন করে সামনের দিকে অগ্রসর হচ্ছেন। স্বপ্নবাজ মানুষ বলেই, অনেক প্রতিকুলকে মোকাবেলা করে স্বপ্নের পথে চলছেন শামীম।

আমারসংবাদ/কেএস