শুক্রবার ২৯ মে ২০২০

১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মে ২১,২০২০, ১০:৪৪

মে ২১,২০২০, ১০:৪৪

আমাজনে করোনা হাসপাতাল

 

আমাজন বৃষ্টিবনানীর স্থানীয় আদিবাসী সম্প্রদায়ের মধ্যে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস। পরিস্থিতি মোকাবিলায় ওই অঞ্চলে কোভিড হাসপাতাল তৈরির উদ্যোগ নিল পেরু সরকার। ব্রাজিলের অংশে থাকা আমাজন বৃষ্টিবনানীর আদিবাসীরাও কোভিড-১৯ আক্রান্ত হচ্ছেন। অভিযোগ, তারা পর্যাপ্ত চিকিৎসা পাচ্ছেন না।

পেরুর সামাজিক নিরাপত্তা সংস্থা এসসালুদ সম্প্রতি জানিয়েছে, ব্রাজিল সীমান্তের উকাচালি প্রদেশের রাজধানী পুকাইপায় ১০০ শয্যাবিশিষ্ট একটি হাসপাতাল তৈরি করা হবে। দ্রুত হাসপাতাল তৈরির জন্য জোর কদমে কাজ শুরু হয়েছে। তিন সপ্তাহের মধ্যেই হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা শুরু করতে চাইছে পেরু সরকার।

আমাজন বৃষ্টিবনানীর পেরুর অংশে (পেরুভিয়ান আমাজন) ইতিমধ্যেই করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ আকার নিয়েছে। সেখানকার লরেটো রিজিয়ানের ইকিতোস শহরের হাসপাতালগুলি কোভিড রোগীতে ভর্তি। নতুন করে রোগী ভর্তির কোনও সুযোগ নেই। স্থানীয় মর্গগুলিতে মৃতদেহের স্তূপ।

পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর আকার নেওয়ায় সামাজিক সুরক্ষা সংস্থার মুখপাত্র জানিয়েছেন, পেরুভিয়ান আমাজনে চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দিতে জোরকদমে কাজ করছে প্রশাসন। সেখানে ২২০ জন স্বাস্থ্যকর্মীও পাঠানোর সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে।

আমাজনের ওই অংশে সড়ক যোগাযোগ নেই। নদীই যাতায়াতের প্রধান মাধ্যম। অক্সিজেন-সহ সমস্ত ডাক্তারি সরঞ্জাম দ্রুত পৌঁছে দেওয়ার জন্য তাই আকাশপথ ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী গুস্তাভো জ়েবাইলেস। সেই জন্য লিমা থেকে পর্যাপ্ত উড়ানের বন্দোবস্তও হচ্ছে।

ব্রাজিল, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর সীমান্ত সংলগ্ন লরেটোয় সংক্রমিতের সংখ্যা আড়াই হাজারের কাছাকাছি। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১০০ জনের। সংক্রমিত হয়েছেন বহু চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীও।

পরিস্থিতি ব্যাখ্যা করতে গিয়ে সংবাদ সংস্থা এএফপি-কে লরেটোর স্বাস্থ্য বিভাগের ডিরেক্টর কার্লোস কালাম্পা ভিডিয়ো কনফারেন্সে জানিয়েছেন, পৃথিবীর ফুসফুস হিসেবে পরিচিত আমাজন বৃষ্টিবনানীতেই এখন অক্সিজেনের আকাল। তাই ইকিতোসে অক্সিজেন প্ল্যান্টের কাজ শুরু হচ্ছে।

প্রত্যন্ত আমাজনের তিকুনা, বিতানিয়া সম্প্রদায়ের মধ্যে করোনা ছড়িয়েছে বলে খবর। জ্বর-সর্দি-কাশির মতো করোনা উপসর্গ রয়েছে বহু লোকের। মৃত্যু হয়েছে কয়েকজনের। আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন পাঁচ জন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী। আদিবাসীদের অভিযোগ, সরকার করোনা মোকাবিলায় কোনও ইতিবাচক পদক্ষেপ করছে না।

আমারসংবাদ/জেআই