মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০

২০ শ্রাবণ ১৪২৭

ই-পেপার

আমার সংবাদ ডেস্ক

জুলাই ৩১,২০২০, ১২:১৩

জুলাই ৩১,২০২০, ১২:১৮

এবার করোনা আক্রান্ত ব্রাজিলের ফার্স্ট লেডি

সদ্য কোভিড থেকে সেরে উঠেছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো। চিকিত্‍‌সা চলাকালীন তিন বার পজিটিভ আসার পর চতুর্থ বারের রিপোর্ট তাঁর নেগেটিভ আসে। তিনি সুস্থ হতে না হতেই তাঁর স্ত্রী, দেশের ফার্স্ট লেডি করোনার শিকার। তিনি ছাড়াও বলসোনারো সরকারের আরও এক মন্ত্রীর করোনা ধরা পড়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে ফার্স্ট লেডির করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত করা হয়। এর আগে জুলাইয়ের গোড়ায় প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো নিজেও করোনায় আক্রান্ত হন। সম্প্রতি তিনি সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ফার্স্ট লেডি মিশেল বলসোনারোর কোভিড টেস্ট রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তবে তাঁর স্বাস্থ্য এখন ভালো আছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার সকালে ব্রাজিলের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ম্যাক্রস পোন্টেস জানিয়েছেন, তিনিও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। এ নিয়ে বোলসোনারো সরকারের পাঁচ জন মন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হলেন।

গত এপ্রিলে আমেরিকার ফ্লোরিডায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন জাইর বলসোনারো। ওই বৈঠক থেকে ফেরার পরেই ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের প্রতিনিধি দলের বেশ কয়েক জনের কোভিড পজিটিভ ধরা পড়ে। তাতে উদ্বিগ্ন হয়েই ১২ এপ্রিল থেকে ১৭ এপ্রিলের মধ্যে তিন বার নমুনা টেস্ট করতে পাঠান। তিন বার রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় তিনি বিস্মিত হন। তিনি ধরেই নিয়েছিলেন প্রতিনিধি দলের কয়েক জনের মতো তাঁর রিপোর্টও পজিটিভ হবে। তবে, চতুর্থ বারের রিপোর্টে তাঁর আশঙ্কাই সত্যি প্রমাণিত হয়।

জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে CNN Brasil-কে দেওয়া লাইভ সাক্ষাত্‍‌কারে তিনি নিজেই করোনাভাইরাসে আক্রান্তের কথা ঘোষণা করেন। জানান, তাঁর টেস্ট রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তবে, এ-ও জানিয়েছেন, তিন সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছেন।

মহামারীর শুরু থেকেই করোনাভাইরাসকে রীতিমতো তাচ্ছিল্য করেছিলেন ৬৫ বছর বয়সি ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট। বলেছিলেন 'সামান্য ফ্লু'। শেষ পর্যন্ত তিনি নিজেও গোটা বিশ্বে ত্রাস ধরানো কোভিড সংক্রমণের শিকার হন।

লাতিন আমেরিকার এই দেশটির করোনা সংক্রমণ কমার কোনও লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুতে শীর্ষ রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তার পরেই রয়েছে ব্রাজিল। আবার শুধু লাতিন আমেরিকার দেশগুলোর মধ্যে হিসেব করলে, ব্রাজিলই করোনায় শীর্ষে রয়েছে।

দেশটির সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ব্রাজিলে এ পর্যন্ত করোনায় ৯০ হাজার ৩৮৩ জন মারা গিয়েছেন। করোনা সংক্রামিত ২৫ লক্ষ ৬৬ হাজার ৭৬৫। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রামিত ১১ হাজার ২৪৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ১,১৮৯ জনের। এখনও পর্যন্ত সেরে উঠেছেন ১৭ লক্ষ ৮৭ হাজার ৪১৯ জন। অ্যাক্টিভ আক্রান্ত ৬ লক্ষ ৮৮ হাজার ৯৬৩ জন।

শীর্ষে থাকা আমেরিকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৬ লক্ষ ১৪ হাজার ৩২০। মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ৫৪ হাজার ৭৯৩ জনের।