মঙ্গলবার ০৭ এপ্রিল ২০২০

২৪ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ০২,২০২০, ০৫:০৫

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

প্রকাশিত হয়েছে পান্নার ‘সুদূর পথের বাঁক পেরিয়ে’ কাব্যগ্রন্থ

কবি ও সাংবাদিক জান্নাতুল ফেরদৌস পান্নার ‘সুদূর পথের বাঁক পেরিয়ে’ নামে ৪র্থ কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। কাব্যগ্রন্থটি পাওয়া যাবে অমর একুশে বই মেলা ২০২০’র দোয়েল প্রকাশনীর ২১৫-২১৬ নম্বর স্টলে। এছাড়াও বইটি পাওয়া যাবে বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গনের ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির স্টলে। ‘সুদূর পথের বাঁক পেরিয়ে’ কাব্যগ্রন্থটির নামকরণের কবিতাটিতে রয়েছে সর্বকালের সর্ব শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে আবেগঘন লেখা। এছাড়াও গ্রন্থটিতে পাওয়া যাবে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে একাধিক কবিতা। রয়েছে প্রেম ও দ্রোহের কবিতা। কবি জান্নাতুল ফেরদৌস পান্নার ‘সুদূর পথের বাঁক পেরিয়ে’ কাব্যগ্রন্থের সার্বিক সাফল্য কামনা করেছেন দোয়েল প্রকাশনীর প্রকাশক তাপস কর্মকার। তিনি বলেন, ‘সুদূর পথের বাঁক পেরিয়ে’ কাব্যগ্রন্থটিতে অসাধারণ কিছু কবিতা রয়েছে। যা পাঠককে কখনও অশ্রুসিক্ত, কখনও আবেগঘন আবার কখনও অমলিন স্মৃতিতে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে। তিনি বইটির সার্বিক সাফল্য কামনা করেন। কবি জান্নাতুল ফেরদৌস পান্না কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া থানাধীন চরপাড়াতলা গ্রামে ১৯৮৩ সালের ১০ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন। ৫ ভাই-বোনের মধ্যে তিনিই প্রথম। ইতোপূর্বে তাঁর লেখা আরো ৩টি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়। এছাড়াও ২০১৬ সালের একুশে বই মেলায় সাত নারী কবির লেখা ‘সপ্ত শৈলী’ নামে আরো একটি যৌথ কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়। কবিতা ছাড়াও তিনি লিখেন ছড়া, ছোট গল্প ও প্রবন্ধ। এরই মধ্যে তার ২টি ছড়ার বই প্রকাশিত হয়েছে। কবি ও সাংবাদিক জান্নাতুল ফেরদৌস পান্না ১৯৯৯ সালে এসএসসি, ২০০২ সালে এইচএসসি, ২০০২-২০০৩ শিক্ষাবর্ষে হিসাব বিজ্ঞানে অনার্স (সম্মান) ও ২০০৬-২০০৭ শিক্ষাবর্ষে হিসাব বিজ্ঞানে এমবিএস (মাস্টার্স) পাস করেন। এছাড়াও তিনি রূপনগর ল’ কলেজ থেকে এলএলবি পাশ করেন। এর আগে ২০০৬ সালে ‘আমার দু’ চোখে স্বাধীনতার স্বপ্ন’, ২০১২ সালে ‘আকাশ সমুদ্রের ঢেউ’ ও ২০১৬ সালে ‘বিবর্ণ সময়’ নামে ৩টি কবিতার বই প্রকাশিত হয়। পেশাগত জীবনে তিনি একজন সাংবাদিক। আমারসংবাদ/এনএমএন/জেডআই