শনিবার ০৪ এপ্রিল ২০২০

২০ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

আমার সংবাদ ডেস্ক

ফেব্রুয়ারি ২৫,২০২০, ০২:৪৪

ফেব্রুয়ারি ২৫,২০২০, ০২:৪৬

শাহীন বাগে পাওয়া যাচ্ছে প্রচুর ব্যবহৃত কন্ডোম!

মুসলিমদের প্রতি বৈষম্যমূলক সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর বিরোধিতায় গত দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে ভারতের রাজধানী দিল্লির শাহীন বাগে বিক্ষোভ চলছে। ওই বিক্ষোভের নাম করে ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে একটি ছবি।

সেখানে দেখা যাচ্ছে রাশি রাশি ব্যবহার করা কন্ডোম একটি জায়গায় পড়ে রয়েছে। বিজেপি সমর্থকদের অনেকে দাবি করছেন, শাহীন বাগের নর্দমা পরিষ্কারের পর এ গুলি পেয়েছেন সাফাই কর্মীরা।

বুধবার ‘প্রভু সাগর’ নামে এক ইউজার এই ছবি নিজের প্রোফাইলে পোস্ট করে হিন্দি ক্যাপশনে যা লেখেন, তার অনুবাদ করলে হয়... ‘আপনি যদি প্রমাণ চান, তাহলে কমেন্টে লিখুন। আমি প্রমাণ দেব। সাফাই কর্মীরা শাহীন বাগের পেছনের নর্দমায় এ গুলি পেয়েছেন।’

এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত পোস্টটি ২০০০-এর বেশি বার শেয়ার করা হয়েছে। ‘গৌতম রাজপুত’ নামে আর একটি ইউজারের হ্যান্ডেলেও একই ছবি পোস্ট করে একই দাবি করা হয়।

সত্য:
অনুসন্ধান করে দেখা গেছে, ছবিটি কিছু না-হলেও চার বছরের পুরনো। ২০১৬ সালে ছবিটি প্রথম ইন্টারনেটে পোস্ট করা হয়। এর সঙ্গে শাহীন বাগের কোনও সম্পর্ক নেই।

অনুসন্ধান ও তথ্য যাচাই:
সোশ্যাল মিডিয়ায় প্ল্যাটফর্মে ও হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়া সব ছবি এক। কোনও অন্য অ্যাঙ্গেলের ছবি নেই। তা স্পষ্ট হয়ে যায় ছবির জলছাপ দেখে। ছবিটি থেকে রিভার্স-সার্চ করে আমরা দেখেছি, ছবিটি একটি প্রতিবেদনে ছাপা হয়েছিল, যা ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে ভিয়েতনামের একটি ওয়েবসাইটে ছাপা হয়েছিল।

গুগল ট্রান্সলেটে সেই ওয়েবপেজের ইংরেজি অনুবাদ করে দেখা যায় প্রতিবেদনটি ছিল ‘Revealing awe of life inside the male dormitory’ শীর্ষক। মূল যে প্রতিবেদনে ছবিটি প্রথম পোস্ট করা হয়েছিল, তাতে কোনও জলছাপ ছিল না।

বিচার
প্রাপ্ত সত্য তথ্যের বিচারে ছবিটি ২০১৬ সালে ইন্টারনেটে প্রথম প্রকাশিত ছবিটি সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। দাবি করা হচ্ছে, কন্ডোমগুলি শাহীন বাগের নর্দমায় মিলেছে। এই দাবি সর্বৈব মিথ্যে। মূলত হিন্দুত্ববাদী বিজেপির সমর্থকরাই এই অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সূত্র: এই সময়, টাইমস অফ ইন্ডিয়া

আমারসংবাদ/এমএআই