সোমবার ০৬ এপ্রিল ২০২০

২৩ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট সংস্করণ

মার্চ ২৬,২০২০, ০১:৪২

মার্চ ২৬,২০২০, ০১:৫৩

‘সাংবাদিকদের আলাদা পাস লাগবে না’

স্থানীয় প্রশাসনকে সহযোগিতার জন্য সশস্ত্রবাহিনী থাকলেও সাংবাদিকদের দায়িত্ব পালনকালে আলাদা কোনো পাসের প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

গতকাল বুধবার তথ্য মন্ত্রণালয়ে সচিবালয় বিটে কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) নেতাদের কাছে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

নভেল করোনা ভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণ ঠেকাতে সারা দেশে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি এবং ২৪ মার্চ হতে সশস্ত্রবাহিনী নামার ঘোষণা দেয় সরকার। এই সময়ে গণপরিবহন বন্ধ, জনসমাগম নিষিদ্ধসহ প্রশাসনের বেশকিছু কাজে সহযোগিতা করবেন সশস্ত্রবাহিনীর সদস্যরা।

ছুটির সময়ে সেনাবাহিনী নামার মধ্যে সাংবাদিকদের দায়িত্ব পালনে আলাদা কোনো পাস বা পরিচয়পত্র ইস্যু করা হবে কি না— জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে মনি করি সাংবাদিকদের যে কার্ড আছে সেটি যথেষ্ট। যদি সাংবাদিকদের মিডিয়া হাউস থেকে বলে দেয়া হয় তিনি অন-ডিউটি তাহলে সেটিই যথেষ্ট।

এর জন্য আলাদা কার্ড দেয়ার প্রয়োজন রয়েছে বলে আমি মনে করি না। একজন সাংবাদিক যখন অন-ডিউটি তখন তাকে সহযোগিতা করা প্রয়োজন বলে মনে করি।

ড. হাছান বলেন, এই দুর্যোগ সম্মিলিতভাবে মোকাবিলা করতে হবে। সাংবাদিকদের সংবাদ সংগ্রহে বিভিন্ন জায়গায় যেতে হয় সেজন্য তারাও কিন্তু করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকির মধ্যে থাকেন। আমরা বলেছিলাম সাংবাদিকদের পার্সোনাল প্রটেকশনের জন্য আমরা কিছু পিপিই দেয়ার ব্যবস্থা করবো।

সরকার করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় ছুটি ও গণপরিবহন বন্ধ করেছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, মানুষের চলাচল বন্ধ হলে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধ হয়। বিশেষ করে চীন, দক্ষিণ কোরিয়া এ ব্যবস্থা নিয়ে অনেকটা সফল হয়েছে।

বিএনপির উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগ নেতা ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আমরা আশা করবো প্রধানমন্ত্রীর উদারতা ও মহানুভতায় যে নেতিবাচক ও ধ্বংসাত্মক রাজনীতি বিএনপি করে আসছিল তা থেকে বের হয়ে আসবে।

অনুষ্ঠানে বিএসআরএফ সভাপতি তপন বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদসহ কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আমারসংবাদ/এসটিএমএ