শনিবার ০৪ এপ্রিল ২০২০

২০ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ২৭,২০২০, ০৬:১২

ফেব্রুয়ারি ২৭,২০২০, ০৬:১২

করোনাভাইরাস: হজ করতে যেতে পারছেন না ১০ হাজার জন

করোনাভাইরাসের কারণে ভিসা হওয়া পরও বাংলাদেশের প্রায় ১০ হাজার জন ওমরাহ হজ করতে যেতে পারছেন না।

বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে ওমরাহ পালনের উদ্দেশে শাহজালাল বিমানবন্দরে অপেক্ষামান যাত্রীদের কাউকেই বোর্ডিং পাস দেয়া হয়নি। সকালে সৌদির উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া বিমানগুলোতেও কোনো ওমারাহ যাত্রী ছিলেন না।

এ বিষয়ে হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম গণমাধ্যমকে বলেছেন, করোনাভাইরাসের কারণে সৌদি আরবে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে দেশটির সরকার। যে কারণে এসব ওমরাহ যাত্রীর ভিসা আটকে গেছে।

বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে একটি নোটিশ জারি করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, সৌদি আরবে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় যারা ওমরাহ করতে চাচ্ছেন বা মদিনায় মসজিদে নববিতে যেতে চাচ্ছেন তাদের প্রবেশাধিকার অস্থায়ীভাবে স্থগিত করা হয়েছে।

ঐ বিবৃতিতে আরো বলা হয়, যেসব দেশে করোনা ভাইরাজ বিপদ হিসেবে দেখা দিয়েছে, ওইসব দেশের পর্যটকদের জন্য ভিসা স্থগিত করা হয়েছে।

এছাড়া জাতীয় আইডি কার্ড ব্যবহার করে সৌদি আরব থেকে জিসিসি দেশগুলোতে যাতায়াতও স্থগিত করা হয়েছে।

সৌদির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, এই স্থগিতাদেশ সাময়িক। তবে কবে নাগাদ এই স্থগিতাদেশ তুলে নেয়া হবে, তা নির্ধারণ করা হয়নি। জুলাইয়ের শেষের দিকে পবিত্র হজের সময়সূচি রয়েছে। এতে এই সিদ্ধান্তের প্রভাব পড়বে কি না, তা এখনো স্পষ্ট নয়।

মদিনায় মসজিদে নববিতে প্রবেশাধিকারও স্থগিত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত সৌদি আরবে করোনাভাইরাসে কেউ আক্রান্ত হননি।

তবে মধ্যপ্রাচ্যের কোনো কোনো দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। সতর্কতা হিসেবে সৌদি এ পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়েছে।

সৌদির পর্যটন মন্ত্রণালয়ের একজন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ২০৩০ সালের মধ্যে প্রতি বছর ১০ কোটি পর্যটক আকৃষ্ট করার লক্ষ্য ঠিক করেছে সৌদি আরব। এ জন্য গত বছরের অক্টোবরে নতুন করে কয়েকটি দেশের জন্য টুরিস্ট ভিসা চালু করা হয়। এ সপ্তাহে চার লাখ টুরিস্ট ভিসা দেয়া হয়।

আমারসংবাদ/এমএআই