শনিবার ০৬ জুন ২০২০

২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

নড়াইল প্রতিনিধি

এপ্রিল ১২,২০২০, ০৭:৫২

এপ্রিল ১২,২০২০, ০৭:৫২

মাশরাফি এবার কারাবন্দীদের পাশে

 

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় এবার নড়াইল করাগারের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সকল আসামিদের জন্য সাবান, মাস্ক, গ্লাভস ও সেনিটাইজার দিয়েছেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ক্রিকেট তারকা মাশরাফি বিন মর্তুজা।

রোববার (১২ এপ্রিল) দুপুরে নড়াইল জেলা কারাগার কতৃপক্ষের নিকট এই সকল জিনিস হস্তান্তর মাশরাফি নিয়ে হাজির হন । এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পি পি এম, জেল সুপার মুজিবর রহমান মজুমদার, নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের সাধারন সম্পাদক তারিকুল ইসলাম (আনিক), নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা মো: রাসেল বিল্লাহ প্রমুখ।

এ বিষয়ে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম (আনিক) জানান, করাগারের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সকল আসামিদের জন্য সাবান, মাস্ক, গ্লাভস ও সেনিটাইজার বিতরণ করা হয়েছে।

মাশরাফি বলেন, যারা কারাগারে আছেন তারাও আমাদের সমাজেরই মানুষ। তাদেরকেও সুরক্ষা করা আমাদেরই দায়িত্ব। আর সেই জন্যই কারাগারের সকল সদস্যদের জন্য বিভিন্ন জিনিস বিতরণ করা হল।

এর আগে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় মাশরাফির নিজ উদ্যোগে ১২৫০ পরিবারে মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন। নড়াইল সদর হাসপাতাল ও লোহাগড়া উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্স এর কর্তব্যরত ডাক্তার ও নার্সদের করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষা থাকার জন্য পিপিই সরবারহ করা হয়েছে, নড়াইল সদর হাসপাতালে জীবাণুনাশক কক্ষ চালু করা হয়েছে, ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা চলমান রয়েছে ফলে ঘরে বসেই ডাক্তারের সেবা পাচ্ছে নড়াইলবাসী।

এদিকে আজ সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে পরিচালিত ভিডিও কনফারেন্সে নড়াইল থেকে অংশ নেওয়া মাশরাফির প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মাশরাফিকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তুমি ভাল কাজ করছো। মুক্তিও (নড়াইল-১ সাংসদ) ভাল কাজ করছে। দুজনে ভাল কাজটা চালিয়ে যাও। তাহলে নড়াইলের ভাল হবে।’

এ সময় মাশরাফি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি এখানকার সংসদ সদস্য ছিলেন। এই আসন আপনার। এই আসনের দিকে আপনি অবশ্যই মনোযোগ দেবেন। নড়াইল সদর হাসপাতালে আড়াইশো বেডের হাসপাতালে একটি আইসিইউ দিলে নড়াইলবাসী আরও উপকৃত হবেন।

মাশরাফি অনুরোধ করেন, নড়াইলে যাদের ত্রাণ প্রয়োজন তারা ত্রাণ পেয়ে যাচ্ছেন। এখানে কমিটি করে সঠিকভাবে ত্রাণ বিতরণ চলছে। তাই এখানে ১০ টাকার চাল আরও বেশি বরাদ্দ দিলে জনগণ উপকৃত হবেন।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আসন্ন রমজান মাসকে সামনে রেখে আবারও চাল দেয়া হবে। এই সংকটময় সময়ে নড়াইলের যেসব জনপ্রতিনিধিরা মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন তারা আগামীতেও এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখবেন। মানুষের যেন কোনো কষ্ট না হয় সে দিকে খেয়াল রাখবেন-এটাই আমার কামনা।

আমারসংবাদ/জেআই